আম্বানির বাড়ির সামনে বিস্ফোরক ভরতি গাড়ি রাখার দায় নিল জইশ-উল-হিন্দ

1 month ago 36

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রিলায়েন্স কর্তা ও এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি মুকেশ আম্বানির (Mukesh Ambani) বাড়ির সামনে বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি রাখা ও হুমকি চিঠি পাঠানোর দায় নিল জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-উল-হিন্দ (Jaish Ul Hind)। টেলিগ্রাম অ্যাপে এক মেসেজ পাঠিয়ে তারা এই দায় স্বীকার করেছে। সেই মেসেজে রীতিমতো হুমকি দিয়ে বলা হয়েছে, তাদের আটকানো সম্ভব নয়। পাশাপাশি মুকেশ আম্বানির কাছ থেকে অর্থ দাবি করতেও দেখা গিয়েছে ওই গোষ্ঠীকে।

প্রসঙ্গত, গত জানুয়ারিতে দিল্লির ইজরায়েলী দূতাবাসের সামনে বিস্ফোরণের দায়ও স্বীকার করেছিল এই গোষ্ঠী। তখনই তদন্তকারীদের হাতে আসা টেলিগ্রাম চ্যাট থেকে জানা গিয়েছিল, দেশের বিভিন্ন শহরে ধারাবাহিক বিস্ফোরণের ছক কষছে তারা। সেই জল্পনা সত্যি করে এবার দেশের ধনীতম ব্যক্তির বাড়ির বাইরে বিস্ফোরক রাখার ঘটনাতেও জড়িয়ে গেল তাদের নাম। টেলিগ্রাম বার্তায় ঠিক কী লিখেছে জইশ-উল-হিন্দ? এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সূত্রে জানা যাচ্ছে, তাদের মেসেজে লেখা আছে, ”আটকাতে পারলে আটকে দেখাও। এর আগে দিল্লিতেও তোমরা কিছু করতে পারোনি।” মেসেজের শেষে মুকেশ আম্বানির উদ্দেশে লেখা, ”তুমি জানো তোমায় কী করতে হবে। আগেই তোমাকে যে টাকার অঙ্কের কথা বলেছিল সেটা ট্রান্সফার করে দাও।”

[আরও পড়ুন: ‘শীত গেলেই কমবে দাম! পেট্রল, গ্যাস কি মরশুমি ফল?’, কেন্দ্রকে কটাক্ষ কংগ্রেসের]

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মুকেশ আম্বানির বাড়ি অ্যান্টিলিয়ার বাইরে ২০টি জিলেটিন স্টিক-সহ একটি গাড়ি উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর থেকেই কারমাইকেল রোডের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়। আসা ও যাওয়ার প্রত্যেকটি গাড়ি তল্লাশি করে তারপর ছাড়া হচ্ছে। মুকেশের বাড়ির বাইরে বিস্ফোরক বোঝাই স্করপিও গাড়িটি রেখে এক ব্যক্তিকে একটি সাদা ইনোভা গাড়িতে চেপে চলে যেতে দেখা গিয়েছিল। ওই সাদা ইনোভাটির সন্ধান এখনও পায়নি পুলিশ। থানের টোল প্লাজায় শেষবার ইনোভাটিকে দেখা গিয়েছিল। তারপর সেটি উধাও হয়ে যায়। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল তা নিয়ে ঘনিয়ে উঠেছে নয়া রহস্য। দ্রুত এই রহস্যের সমাধান করতে মরিয়া মুম্বই পুলিশ (Mumbai Police)। এখনও পর্যন্ত অন্তত ১৫ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। খুঁটিয়ে দেখা হয়েছে শ’খানেক সিসিটিভি ফুটেজ।

[আরও পড়ুন: দায়িত্ব পেয়েই তৎপর বিবেক দুবে, ভোটের আগে রবিবার রাজ্যে আসছেন পুলিশ পর্যবেক্ষক]

Read Entire Article